ঢাকামঙ্গলবার, ৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ২:৩৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পিরোজপুরে কর্মকর্তাকে কুপিয়ে আহত করে উল্টো মামলার ঘটনায় জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত

নাজিরপুর প্রতিনিধি
জুন ১২, ২০২২ ১০:১৬ অপরাহ্ণ
পঠিত: 156 বার
Link Copied!

পিরোজপুরের নাজিরপুরে নাইম মোল্লা নামে একজন বেসরকারী কর্মকর্তাকে কুপিয়ে আহত করে উল্টো মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হলে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছে পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালত বলে অভিযোগ করেছেন আসামীর পরিবারের সমদস্যরা। রোববার (১২ জুন) বিকেলে পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মুহিদুজ্জামান এর আদালতে অসুস্থ্য আসামী নাইম মোল্লার জামিন আবেদন করলে তা নামঞ্জুর করে দেয় আদালত।

এসময় নাইম মোল্লার আইনজীবীরা তার অসুস্থ্যতার জনিত কারনে জরুরী চিকিৎসা দরকার বলে জানালেও আদালত তা আমলে না নিয়ে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে। আসামী নাইমকে কুপিয়ে আহত করে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন পরিবারের লোকজন। শারীরিকভাবে গুরুতর অসুস্থ নাইম মোল্লার মিথ্যা মামলাটি থেকে জামিন এর মাধ্যমে বের করে তার উন্নত চিকিৎসা দরকার বলে তারা জানান।

মামলা ও পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, চলতি বছরের ২৯ শে এপ্রিল নাইম মোল্লা তার বাবার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নিজ বাড়ি নাজিরপুর উপজেলার মালিখালি ইউনিয়নের ঝনঝনিয়া গ্রামে আসলে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষ নজরুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা অতর্কিত হামলা চালায় এবং নাইম মোল্লাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্বকভাবে আহত করে। আহত নাইম মোল্লাকে উদ্ধার করে প্রথমে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে সেখান থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়। নাইম মোল্লা ধারালো অস্ত্রেও আঘাতে ফুসফুসে এবং কানে মারাত্মক ইনজুর হয়।

ঘটনার তিনদিন পরে উল্টো নাইম মোল্লাকে প্রধান আসামী করে ৮ জনের নামে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ এনে পরিকল্পিতভাবে নাজিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে প্রতিপক্ষ মোঃ নজরুল ইসলাম। অসুস্থ্য নাইম মোল্লাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন আদালত।

ঘটনাস্থলে থাকা শাহীন মোল্লা জানান, জমিজমা নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দির্ঘদিন ধরে মোঃ নজরুল ইসলাম নজীব তার লোকজন নিয়ে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলো নাইম মোল্লার পরিবারকে। এরই ধারাবাহিকতায় তার ভাই নাইম মোল্লাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে পিটিয়ে আহত করে মিথ্যা মামলা দিয়ে দেয়। এতে আহত নাইম মোল্লা জেল হাজতে রয়েছে। তার চিকিৎসা দরকার কিন্ত আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করাতে অনেকটাই হতাশ তাদের পরিবার।

বোন বিউটি জামান জানান, তার ভাই নাইম মোল্লা মান বাংলাদেশ লিমিটেড নামে একটি কোম্পানির ডেপুটি ম্যানেজার কর্মাশিয়াল হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি বাবার মৃত্যুবার্ষিকী পালনে বাড়িতে আসলে প্রতিপক্ষরা পরিকল্পনা করে তাকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। ঘটনার কয়েকদিন পরে থানা ম্যানেজ করে উল্টো আহত নাইম মোল্লাকে একটি মামলায় প্রধান আসামী করে মামলা দেয়। গুরুতর অসুস্থ নাইম মোল্লা জেল হাজতে আছে। আমরা তার জামিনের আবেদন করেও তার জামিন পাইনি। আমরা প্রতিপক্ষের ভয়ে এখনো ভীত রয়েছি। এমন মিথ্যা মামলার কারনে আমরা পারিবারিকভাবে খুব হতাশগ্রস্থ।

আসামী পক্ষের আইনজীবী এ্যাড. শাহ আলম জানান, রোববার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে নাইম মোল্লার জামিনের আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে। আমাদের পক্ষ থেকে আমরা বারবারই বলেছি আসামী অসুস্থ্য তার চিকিৎসার দরকার। ভিকটিমই যখন আসামী সে বিষয়ে আদালত জামিনের বিষয়টি আমলে নিতে পারতেন।

পাবলিক প্রসিকিউটর খান মো: আলাউদ্দিন জানান, আসামী পক্ষের আইনজীবী জামিনের আবেদন করলে আদালত তা না নামঞ্জুর করেছেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।