ঢাকামঙ্গলবার, ৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৩:৩৪
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কে হাসবে শেষ হাসি – পাকিস্তান নাকি শ্রীলঙ্কা?

মুক্তবার্তা ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ১১, ২০২২ ৬:৪৯ অপরাহ্ণ
পঠিত: 23 বার
Link Copied!

এশিয়া কাপের শুরু থেকেই সম্ভাবনা ছিল ভারত-পাকিস্তান ফাইনালের, এক আসরে তিন মহারণের মঞ্চটাও গড়া ছিল বৈকি। পাকিস্তান নিজেদের ওপর প্রত্যাশার সে চাপটা ধরে রেখেছে ঠিকই, নিজেদের নিয়ে এসেছে আজকের ফাইনালে। তবে ভারত পারেনি। তবে পাশার দানটা মূলত উলটে দিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ভারতের পথ রুদ্ধ করে তারাই আজ রোববার চলে এসেছে এশিয়ান শ্রেষ্ঠত্ব থেকে হাতছোঁয়া দূরত্বে। আজ দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় দুই দল নামবে শিরোপার লক্ষ্য নিয়ে।

এশিয়া কাপটা বরাবরই পাকিস্তানের জন্য এক আক্ষেপের নাম। নিজেদের ইতিহাসে প্রথম আইসিসি শিরোপা যখন জিতেছে পাকিস্তান, এশিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের মুকুটটা প্রথমবারের মতো পরেছে তারও আট বছর পর। এরপর সবেধন নীলমনি শিরোপাটা জিততে লেগে গেছে আরও ১২ বছর। একটা করে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আর আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতা পাকিস্তানের ট্রফি ক্যাবিনেটে এশিয়া কাপ শিরোপা সেই দুটোই।

আরও বাড়তে পারত বৈকি, ২০১২ সালে বাংলাদেশের মাটিতে সবশেষ শিরোপাটা জেতা পাকিস্তান সেই একই ভেন্যুতে দুই বছর পর আবার খেলেছিল ফাইনালে। তবে সেবার দলটির পথ আগলে দাঁড়ায় এই শ্রীলঙ্কাই। সেই ফাইনালের ‘প্রতিশোধ’ নেওয়ার সুযোগ আজ পাকিস্তানের সামনে। ‘প্রতিশোধ’ অবশ্য আরও একটা নিতে চাইতেই পারে পাকিস্তান, সবশেষ ম্যাচেই যে শ্রীলঙ্কার কাছে হেরেছে বাবর আজমের দল!

তবে কাজটা সহজ নয়। এশিয়া কাপের দ্বিতীয় সফলতম দল শ্রীলঙ্কা আজ নামছে তাদের ১১তম ফাইনালে, আজ তাদের সামনে আছে ষষ্ঠ শিরোপার হাতছানি, যেটা হলে তারা ভারত থেকে পিছিয়ে থাকবে এক শিরোপার ব্যবধানে।

সাম্প্রতিক ফর্মও কথা বলছে লঙ্কানদের পক্ষেই। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানদের কাছে দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া এক হারে যাত্রা শুরু এই টুর্নামেন্টে, এরপর থেকেই লঙ্কানরা যেন অদম্য। বাংলাদেশকে হারিয়ে এসেছে সুপার ফোরে, এরপর আফগানদের হারিয়ে প্রতিশোধ তুলে, ভারতের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে, ফাইনালের পোশাকি মহড়ায় পাকিস্তানকে হারিয়ে এসেছে আজকের ফাইনালে। মোমেন্টামটা যে তাদের পক্ষেই থাকবে তা বলাই বাহুল্য।

ওদিকে পাকিস্তানের শুরুটা শ্রীলঙ্কার মতো দুমড়ে মুচড়ে না হলেও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে হেরেই হয়েছিল। তবে এরপর হংকংকে উড়িয়ে, সুপার ফোরে ভারত-আফগানিস্তানকে হারিয়ে এসেছে এই ফাইনালে। আভাস মিলছে দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতারও।

তবে সেই প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জল ঢেলে দিতে পারে টস। এই মাঠে সবশেষ ৩০ ম্যাচের ২৭টিতেই শেষ হাসি হেসেছে পরে ব্যাট করা দল। এবারের এশিয়া কাপেও দৃশ্যটা পাল্টায়নি খুব, মূল পর্বের ১২ ম্যাচের ১১ ম্যাচেই টস জেতা অধিনায়ক নিয়েছেন ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত। ৯টিতেই জিতেছে পরে ব্যাট করা দল। বাকি যে তিন ম্যাচে আগে ব্যাট করা দল জিতেছে, তারা অন্তত ১৯০ এর বেশি রান করেছেই। তবে সেই তিন ম্যাচে জয়ী আর বিজিত দলের শক্তিসামর্থ্যের পার্থক্যটা ছিল বিস্তর। ফলে আজকের ম্যাচে তেমন কিছুর দেখা না মেলার সম্ভাবনাই বেশি। টস জিতলেই অধিনায়কের ফিল্ডিং নেওয়া আর শিরোপা জেতার সম্ভাবনা বেশ।

দুই দলের কারোই চোট সমস্যা নেই। আগের ম্যাচে বিশ্রাম পাওয়া নাসিম শাহ আর শাদাব খানকে আজ ফেরাবে পাকিস্তান। ওদিকে লঙ্কান দলে আগের ম্যাচের একাদশ থেকে বাদ পড়তে পারেন প্রমোদ মাদুশান, তার জায়গায় ফিরতে পারেন আসিথা ফার্নান্দো। পূর্ণ শক্তির দল নিয়েই আজ ফাইনালে নামছে দুই দল। এখন অপেক্ষা, কার মাথায় ওঠে এশিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট তা দেখার।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।