ঢাকাবৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৫:২৪
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নীলফামারীতে মা-মেয়ে দিচ্ছে এইচএসসি পরীক্ষা

আরফিনুল ইসলাম, নীলফামারী প্রতিনিধি
নভেম্বর ৬, ২০২২ ৫:৫১ অপরাহ্ণ
পঠিত: 63 বার
Link Copied!

লেখাপড়া করার এক অদম্য ইচ্ছে মারুফা আক্তারের। কিন্তু সেই ইচ্ছে বুকের মধ্যে চাপা রেখেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন তিনি। ২০০৩ সালে দেয়ার কথা ছিল এসএসসি পরীক্ষা। কিন্তু পরীক্ষার বছরেই পরিবার থেকে তার বিয়ে দেয়া হয়। এরপর আর পরীক্ষা দিতে পারেননি। এগোয়নি পড়াশোনা করা দীর্ঘ লালিত স্বপ্ন।

কিন্তু বুকের ভেতরের সেই ইচ্ছে তার সবসময়ই ছিল। আর তাই ইচ্ছা শক্তির ওপর ভর করে তিনি নতুন করে শুরু করেন লেখাপড়া। নিজের মেয়ের সাথে নবম শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছিলেন। মেয়ের সাথেই একসাথে করেছেন এসএসসি পাশ। এবার সেই মেয়ের সঙ্গে একসঙ্গে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন তিনি। সংগ্রামী এই মায়ের নাম মারুফা আক্তার(৩৬)। তার বাড়ি নীলফামারী ডিমলা উপজেলার ঝুনাগাছ চাপানী গ্রামে। তিনি শেখ ফজিলাতুনেছা মুজিব সরকারী মহিলা মহাবিদ্যালয় থেকে চলতি বছর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ডিমলা টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউট কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেন।

আর তার মেয়ে শাহী সিদ্দিকা একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে বিজ্ঞান বিভাগে ডিমলা সরকারী মহিলা মহাবিদ্যালয় কেন্দ্রে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন। মারুফা আক্তারের স্বামী পেশায় একজন ব্যবসায়ী। মারুফা আক্তারের চার সন্তানের মধ্যে দুই ছেলে আর দুই মেয়ে। বড় মেয়ে শাহী সিদ্দিকা এইচএসসি পরীক্ষার্থী, ছেলে দশ শ্রেনীতে, দ্বিতীয় ছেলে অষ্টম শ্রেনীতে ছোট মেয়ে দ্বিতীয় শ্রেনীতে অধ্যয়ন করছেন।

মারুফা আক্তারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ছোট বেলায় থেকে আমি পড়াশুনায় মনযোগী ছিলাম। কিন্তু বিয়ের কারণে লেখা-পড়া চালিয়ে যেতে পারিনি। বিয়ের ১৭ বছরে পরে স্বামীর অনুপ্রেরনায় এসএসসি দেই এবছর এইচএসসি পরীক্ষা দিবো। তবে, এসএসসিতে মেয়ের চেয়ে ফলাফল বেশি ছিল এবারও বেশি ভালো পরীক্ষা হবে। উচ্চ মাধ্যমিকে ভালো ফলাফল আসলে উচ্চ শিক্ষার জন্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য চেষ্টা করবো।

মারুফা আক্তারের স্বামী শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমার জন্য একটু কষ্ট হলেও আমি তার ইচ্ছার মর্যাদা দিয়েছি। সে যতদূর পড়াশোনা করতে পারে, আমি চালিয়ে নেয়ার চেষ্টা করব।’

এ বিষয়ে শেখ ফজিলাতুনেছা মুজিব সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ হাফিজুল ইসলাম জানান, মা-মেয়ের বিষয়টি আসলে অবাক লাগানো মতো। বিষয়টি অনুপ্রেরণা জাগিয়েছে। শিক্ষার কোনো বয়স নেই, চলো সবাই পড়তে যাই। এটা তার বাস্তব উদাহরণ। তবে, শাহী সিদ্দিকার চেয়ে এসএসসিতে তার মায়ের ফলাফল ভালো আছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।